Category Archives:

ফেরেব ছেড়ে করো ফকিরি

ফেরেব ছেড়ে করো ফকিরি।
দিন তোমার হেলায় হেলায় হল আখেরি।।

ফেরেব ফকিরের ধারা
দরগা নিশান ঝাণ্ডাগাড়া
গলায় বেধে হড়ামড়া
শিরনি খাওয়ার ফিকিরি।।

আসল ফকিরি মতে
বাহ্য আলাপ নাহি তাতে
চলে শুদ্ধ সহজ পথে
অবোধের চটক ভারি।।

নাম-গোয়ালা কাজি ভক্ষণ
তোমার দেখি তেমনি লক্ষণ
সিরাজ সাই কয় অবোধ লালন
কর সাধুর খাতায় জুয়াচুরি।।

Posted from WordPress for Android


ফের প’লো তোর ফকিরিতে

ফের প’লো তোর ফকিরিতে।
যে ঘাট মারা ফিকির-ফাকার ডুবে ম’লি সেই ঘাটেতে।।

ফকিরি সে এক নাচাড়ি
অধর ধরে দিতাম বেড়ি
পাস্তানি খোলা দুয়ারি
তাই দেখে রেখেছি পেতে।।

না জেনে ফিকিরি আটা
শিরেতে পরালাম জটা
সার হলো ভাং ধুতরা ঘোটা
ভজন-সাধন সব চুলাতে।।

ফকিরি-ফিকিরি করা
হতে হবে জ্যান্তে মরা
লালন কয় নেংটি এড়া
আট বসে না কোনো মতে।।


ফকিরি করবি ক্ষ্যাপা কোন্‍ রাগে

ফকিরি করবি ক্ষ্যাপা কোন্‍ রাগে।
আছে হিন্দু – মুসলমান দুই ভাগে।।

ভেস্তের আশায় মমিনগণ
হিন্দুরা দেয় স্বর্গেতে মন
ভেস্ত – স্বর্গ ফাটক সমান
কার বা তা ভাল লাগে।।

ফকিরি সাধন করে
খোলসা রয় হজুরে
চল কী সে অটল মুকাম
নিহাজ করে জান আগে।।

অটল প্রাপ্তি কিসে হয়
মুরশিদের ঠাঁই জানিতে হয়
সিরাজ সাই তাই লালনকে কয়
ভুগিস্‍ নে ভবের ভোগে।।


ফকির হলি রে নিমাই কীসের দুঃখে

ফকির হলি রে নিমাই কীসের দুঃখে।
খাবি দাবি নাচবি গাবি দেখবো চোখে।।

একা পুত্র তুই রে নিমাই
অভাগীর তো আর কেহ নাই
তোর বিনে আর জীবন জুড়াই
কারে দেখে।।

যে আশা মনে ছিল
সকলি নৈরাশ হল
কে তোরে কোপিন পরাল
মায়া ত্যাগে।।

শুনে শচীমাতার রোদন
অধৈর্য হয় দেবতাগণ
লালন বলে কী কঠিন মন
নিমাই রাখে।।