Category Archives:

আর কি হবে এমন জনম বসবো সাধুর মেলে

আর কি হবে এমন জনম বসবো সাধুর মেলে।
হেলায় হেলায় দিন বয়ে যায় ঘিরে নিল কালে।।

কত কত লক্ষ যোনী
ভ্রমণ করে জানি
মানবকুলে মন রে তুমি
এসে কী করিলে।।

মানবকুলেতে আসায়
কত দেব-দেবতা বাঞ্ছিত হয়
হেন জনম দীন-দয়াময়
দিয়েছে কোন ফলে।।

ভুলো না রে মনরসনা
সমঝে কর বেচাকেনা
লালন বলে কূল পাবা না
এবার ঠকে গেলে।।

Posted from WordPress for Android


আমার মন-বিবাগী ঘোড়া বাগ ফিরাতে পারি নে দিবারাতে

আমার মন-বিবাগী ঘোড়া বাগ ফিরাতে পারি নে দিবারাতে।
মুর্শিদ আমার বুটের দানা খায় না ঘোড়ায় কোন মতে।।

বিসমিল্লায় দিয়ে লাগাম
একশ’ ত্রিশ তাহার পালান
হাদিস মতে কশনি কসে
চড়লাম ঘোড়ায় সোয়ার হতে।।

বিসমিল্লার গম্ভু ভারি
নামাজ রোজা তাহার সিঁড়ি
খায় রাতে দিনে পাঁচ আড়ি
ছিঁড়ল দড়া আচম্বিতে।।

লালন সাঁই কয় রয়ে সয়ে
কত ঘোড়সোয়ারি যাচ্ছে বেয়ে
পার যাব কি আছি বসে
শুধু আমার কোড়া হাতে।।

Posted from WordPress for Android


আহাদে আহাম্মদ এসে নবি নাম তাই জানালে

আহাদে আহাম্মদ এসে নবি নাম তাই জানালে ।
নবি যে তনে করিল সৃষ্টি সে তন কোথায় রাখিলে ।।

আহাদ নামে পরোয়ার
আহাম্মদ রূপে সে এবার
জন্মমৃত্যু হয় যদি তার
শরার আইন কই চলে ।।

নবি যারে মানিতে হয়
উচিৎ বটে তাই জেনে লয়
পুরুষ কি সে প্রকৃতি কায়
সৃষ্টির সৃজন কালে ।।

আহাদ নামে কেন রে ভাই
মানবলীলা করিলেন সাঁই
লালন বলে তবে কেন যাই
অদেখা ভাবুক দলে ।।


আশেকে উন্মত্ত যারা

আশেকে উন্মত্ত যারা ।
সাঁইয়ের মনের বিয়োগ জানে তারা ।।

কোথা বা শরার টাটি
আশেকে বেভুল সেটি
মাশুকের চরণ দুটি
রয়েছে সে রূপ নিহারা ।।

মাশুক রূপটি হৃদয়ে রেখে
আশেকের বাতি জ্বেলে দেখে
শত শত স্বর্গ দেখে
মাশুকের চরণের ধরা ।।

নাহি মানে ধর্মাধর্ম
নাহি তার কর্মাকর্ম
যার হয়েছে বিকারশূন্য
লালন কয় তার করণ সারা ।।


আশেক বিনে ভেদের কথা কে আর বোঝে

আশেক বিনে ভেদের কথা কে আর বোঝে ।
শুধালে খলিফাগণে বলে রাসুল বলেছে ।।

মাশুকের যে হয় আশেকি
খুলে যায় তার দিব্য আঁখি
নফছ আল্লা নফছ নবি
দেখে অনাসে ।।

যেহি মুর্শিদ সেহি রাসুলুল্লা
সাবুদ কোরান কালুল্লা
যেজন আশেকে বলেছে আল্লা
তাও হয় সে ।।

মুর্শিদের হুকুম মান
দায়েমি নামাজ জান
রাসুলের যে ফরমান
লালন তাই রচে ।।


আশাসিন্ধু তীরে বসে আছি সদাই

আশাসিন্ধু তীরে বসে আছি সদাই ।
সাধুর যুগল চরণধুলো লাগবে কি এই পাপীর গায় ।।
ভালোর ভাগী অনেকজনা
মন্দের ভাগী কেউ তো হয় না
কেবল সাধু দয়াবান, সবারই সমান
তাইতে দোহাই দেই তোমায় ।।

সাধু না লইবে যারে
কে আর লইবে তারে
জানাও মহিমা, কর পাপ ক্ষমা
এই পাপীর হও সদয় ।।

দিনের দিন ফুরায়ে এলো
মহাকালে ঘিরে নিলো
বলে মূঢ় লালন, হীন হয়েছি ভজন
না জানি মোর ভাগ্যে কী হয় ।।


আল্লার বান্দা কিসে হয় বলো গো আমায়

আল্লার বান্দা কিসে হয় বলো গো আমায় ।
খোদার বান্দা নবির উম্মত কী করিলে হওয়া যায় ।।

আঠারো হাজার আল্লার আলম
কত হাজার কালাম হয়
সিনা সফিনায় কয় হাজার রয়
কয় হাজার এই দুনিয়ায় ।।

কত হাজার আহাদ কালাম
তাহার খবর কও আমায়
কোন্ সাধনে নূর সাধিলে
সিনার কালাম হয় আদায় ।।

গোলামি করিলে পরে
আল্লাহ ভেদ পাওয়া যায়
লালন বলে আহাদ কালাম
দিবেন কি সাঁই দয়াময় ।।