Monthly Archives: জানুয়ারি 2014

সবাই কি তার মর্ম জানতে পায়

সবাই কি তার মর্ম জানতে পায়।
যে সাধনভজন করে সাধনে অটল হয়।।

অমৃত মেঘের বরিষণ
চাতক ভাবে জান রে মন
তার একবিন্দু পরশিলে
শমনজ্বালা ঘুচে যায়।।

যোগেশ্বরী সঙ্গে যোগ করে
মহাযোগ সে জানতে পারে
তিন দিনের তিন মরম জেনে
একদিনেতে সেধে লয়।।

বিনা জলে হয় চরণামৃত
যা খেলে যায় জরামৃত
ফকির লালন বলে, চেতনগুরুর সঙ্গ নিলে
দেখিয়ে দেয়।।

Posted from WordPress for Android


সব লোকে কয় লালন কী জাত সংসারে

সব লোকে কয় লালন কী জাত সংসারে।
লালন কয় জেতের কী রূপ দেখলাম না এই নজরে।।

সুন্নত দিলে হয় মুসলমান
নারী লোকের কী হয় বিধান
বামুন চিনি পৈতে প্রমাণ
বামনী চিনি কীসে রে।।

কেউ মালা কেউ তসবি গলে
তাই তে কি জাত ভিন্ন বলে
আসা কিংবা যাওয়ার কালে
জেতের চিহ্ন রয় কার রে।।

জগৎ জুড়ে জেতের কথা
লোকে গল্প করে যথাতথা
লালন বলে জেতের ফাতা
ডুবাইছি সাধবাজারে।।

Posted from WordPress for Android


সপ্ততালা ভেদ করিলে হাওয়ার ঘরে যাওয়া যায়

সপ্ততালা ভেদ করিলে হাওয়ার ঘরে যাওয়া যায়।
হাওয়ার ঘরে গেলে পরে অধর মানুষ ধরা যায়।।

হাওয়াতে হাওয়া মিশায়ে
যাও রে মন উজান বেয়ে
জলের বারি লাগবে নারে
যদি গুরুর দয়া হয়।।

গুরুপদে যার মন ডুবেছে রে
সেকি ঘরে রইতে পারে
রত্ন থাকে যত্নের ঘরে
কোন সন্ধানে ধরবি তাই।।

মৃণালের পর আছে স্থিতি
রূপের ছটা ধরবি যদি
লালন কয় তার গতাগতি
সেইখানেতে চাঁদ উদয় হয়।।

Posted from WordPress for Android


ক্ষ্যাপা না জেনে তোর আপন খবর যাবি কোথায়

ক্ষ্যাপা না জেনে তোর আপন খবর যাবি কোথায়।
আপন ঘর না খুঁজিয়ে বাইরে খুঁজলে পড়বি ধোঁকায়।।

আমি সত্য নাহি হলে
গুরু সত্য কোনকালে
আমিকে যেরূপ দেখা
সেইরূপে দীন দয়াময়।।

আত্মারূপে সেই অধর
অঙ্গ অংশ কলারূপ তার
ভেদ না জেনে বলে
কী করিলে কী হয়।।

আপনার আপনি না চিনে
ঘুরবি কত এ ভুবনে
লালন বলে অন্তিমকালে
নাহি রে উপায়।।

Posted from WordPress for Android


খোদে খোদার প্রেমিক যে জনা

খোদে খোদার প্রেমিক যে জনা।
মুর্শিদের রূপ হৃদয় রেখে কর ভজন সাধনা।।

আগে চায় রূপটি চেনা
তবে যাবে খোদাকে জানা
মুর্শিদকে না চিনলে পরে
হবে না তোর ভজনা।।

আগে মনকে নিষ্ঠা কর
নবি নামের মালা গাঁথ
অহর্নিশি চেতন থাক
কর কাল-যাপনা।।

সিরাজ সাঁইজীর চরণ ভুলে
অধীন লালন কেঁদে বলে
চরণ পাই যেন অন্তিমকালে
আমায় ফেল না।।

Posted from WordPress for Android